করোনা! মহাজাগতিক অণুজীব? না বহির্বিশ্বের আক্রমণকারী?

সংক্রমণের তীব্রতা আন্দাজ করতে পারার আগেই শুরু হয়ে গেলো মানুষের মৃত্যু মিছিল, লক্ষ লক্ষ মানুষ একদিনে সংক্রমিত হতে লাগলো আর হাজারে হাজারে ভাগ্যহীন মানুষ অকালে প্রাণ হারালো এই অজানা করোনা ভাইরাসের অতিমারিতে।

The New World (Natun Prithibi)

যুদ্ধ ছাড়া আজকের আধুনিক মানুষ বোধ হয় একসঙ্গে এত মানুষের মৃত্যু মিছিল আগে কখনো দেখেনি! এ যেন এক অঘোষিত তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ! কাতারে কাতারে মানুষ মুহূর্তের মধ্যে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু কে বরণ করতে বাধ্য হচ্ছে। কোনো চিকিৎসা নেই! বিশ্ববিখ্যাত জীব বিজ্ঞানীরা, চিকিৎসকেরা, গবেষকেরা সবাই যেন নীরব দর্শক! কারো কিছু করার নেই! শুধু দেখতে থাকো জীবন্ত মানুষ কিছুক্ষনের মধ্যেই কী ভাবে মৃত্যু কে বরণ করবে! সমস্ত বিশ্বের শক্তিধর দেশ গুলো মুহূর্তে র মধ্যে কেঁপে উঠলো। যারা চাঁদ, সূর্যের মধ্যে মহাকাশ যান পাঠাতে পারে, কোটি আলোক বর্ষ দূরে নক্ষত্রের বিষয়ে জানার জন্য সর্বশক্তি প্রয়োগ করতে পারে, কোটি কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে পারে তারাও আজ এই অজানা করোনা র সামনে অসহায় দর্শকের ভূমিকায় দাঁড়িয়ে শুধু আত্মসমর্পণ করলো।

সর্ব শক্তিমান আমেরিকা, ইংল্যান্ড, ইতালি, ফ্রান্স আর দুর্বল দেশ গুলির মধ্যে কোনো পার্থক্য রইলনা। যে দেশ গুলির ক্ষমতার প্রদর্শন প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের দিক দর্শন আর গতি প্রকৃতি বদলে দিয়েছিল আজ তারাই যেন এই অজানা অচেনা এক অণুজীবের সামনে অসহায় আত্ম সমর্পণ করতে বাধ্য হলো। একটাও কামান চললো না, একটাও গুলি ছুটলো না, একটাও যুদ্ধ বিমান উড়লনা, একটাও যুদ্ধ জাহাজ সাগরে নামলনা, একজন ও সৈনিক একটাও বন্দুক হাতে নিলোনা, এক অলিখিত , অঘোষিত তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলো! একদিকে প্রচন্ড শক্তিমান এমনকি কোনো কোনো ক্ষেত্রে ইশ্বর কেও সংপ্রশ্ন ছুঁড়ে দেয়ার ক্ষমতা সম্পন্ন, আধুনিক মানুষ একযোগে একসঙ্গে তার সমস্ত প্রকার প্রতিরোধ ও অত্যাধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে দাঁড়িয়ে রইলো সেই অজানা, অচেনা এক অণুজীবের সামনে! এ যেন এক বহির্বিশ্বের কোন এক আগন্তুক, আক্রমণকারী! অবহেলায় লক্ষ, কোটি মানুষ কে ধরাশায়ী করে অকাল মৃত্যুর মিছিলে ঠেলে দিল। কোনো শব্দ নেই, কোনো সংকেত নেই, নিশব্দ ঘাতকের মত এলো আর মেরে দিয়ে চলে গেলো। পড়ে রইলো অসহায় মানুষের ভীড়, মৃতদেহ! নির্বিচারে মেরে দিয়ে গেলো। কোনো তফাত রইলনা কে হিন্দু, কে মুসলিম, কে শিখ, কে খ্রিষ্টান, কে বৌদ্ধ বা কে আর অন্য ধর্মের আর কেই বা নাস্তিক! বিন্দু মাত্রও পার্থক্য রইলনা কে ধনী আর কেই বা দরিদ্র? কোনো রেহাই হলনা মানুষের যে তারা কোন দেশের আর কোন দিকের!

The New World (Natun Prithibi)

ক্রমশঃ প্রকাশিত ।

মূল গ্রন্থ , ” করোনা! মহাজাগতিক অণুজীব? না বহির্বিশ্বের আক্রমণকারী?” থেকে সংগৃহীত।

লেখক সুব্রত মুখার্জী।

©️ Subratagolapi

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s